জায়েদ খান আর রাস্তার ব্যাঙ একই কথা: মৌসুমীর ছেলে

ওমর সানী-মৌসুমীর সংসার ভাঙার চক্রান্ত করছেন জায়েদ খান- এমন অভিযোগ তুলেছেন ওমর সানী। এ দিকে নীরবতা ভেঙে বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করেছেন মৌসুমী। অডিও বার্তায় এ অভিনেত্রী দাবি করেছেন—‘জায়েদ খান তাকে অসম্মান করেনি, সে ভালো ছেলে বরং ওমর সানী মিথ্যাচার করছে।’ মৌসুমীর কণ্ঠের সেই অডিও শুনে ওমর সানীও বেশ আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে বলছেন, তিনি যা বলেছেন, সব সত্য। ডিস্টার্ব করার যথেষ্ট প্রমাণ তাদের কাছে আছে।আমার ছেলে-মেয়ে বাকি কথাগুলো বলবে, এটার সত্যতা কতটুকু।এ বিষয়ে মৌসুমী-সানীর বড় ছেলে ফারদিন কথা বলেছেন সাংবাদিকদের সঙ্গে। তিনি জটিলতাকে খুব বড় আকারে দেখতে না চাইলেও স্বীকার করে বলেন, সানীর ওপর অভিমান বা রাগ করেছেন মৌসুমী। ফারদিন বলেন, ‘যতটা বড় করে জিনিসটা দেখা হচ্ছে, ততটা বড় এটা না। তাদের মধ্যে কোনো ইস্যুজ থাকলে সেটা তাদের মধ্যেই সমাধান হয়ে যাবে। সেখানে বাবাকে কেন্দ্র করে যদি বলে থাকে, তাহলে সেটা রাগ থেকেই হয়তো বলেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমার ঘরের বিষয় এখনও এত বাজে আকারে পরিণত হয়নি বা হবেও না যেটা নিয়ে এত সংবাদ প্রচার করতে হবে।’ ফারদিন জানান, সোমবার সকালে মৌসুমী যে অডিও বার্তা দিয়েছেন, তা মূলত পুরো বিষয়টাকে শীতল করার জন্য।‘আমি মাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম ব্যাপারটা নিয়ে। মা বললেন, ঘরের মধ্যে অনেক কিছু নিয়েই মনোমালিন্য থাকে। ছোট বিষয়, বড় বিষয় নিয়ে ইস্যু তৈরি হয়।’

‘আম্মু আমাকে আরও বলেছে, এটা যেন আরও বড় করে না হয় সে জন্যই এটা করেছি। যা সমস্যা হবে ঘরে, যা সমাধান হবে তাও ঘরে।’ সানীকে নিয়ে অডিও রেকর্ডে মৌসুমী যে বক্তব্য দিয়েছেন, তা নিয়ে মায়ের কাছে জানতে চেয়েছিলেন ফারদিন। ফারদিনকে উত্তরে মৌসুমী জানান, বিভিন্ন কথার মাঝখানে তার রাগ হয়তো চলে আসতে পারে, অভিমান চলে আসতে পারে। ওমর সানীর তোলা অভিযোগ জায়েদ খানের দ্বারা ঘটানো সম্ভব বলেও মনে করেন ফারদিন।

ফারদিন বলেন, সত্যি কথা হলো উনি (জায়েদ খান) ডিস্টার্ব করেন। আমি চাইলেও এখন প্রমাণ সবার সামনে হাজির করবো না। ‘জায়েদ খান কখনই তাদের (সানী-মৌসুমী) ভালো চায়নি। নির্বাচনের সময় থেকে শুরু হয়েছে। আমাকে হেনস্তা করেছে। শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে, আব্বু-আম্মুকে পাচ্ছে না, আমাকে ধরছে। আমার রেস্ট্রুরেন্টকে আঘাত করে আমাদের ক্ষতি করার চেষ্টা করেছে। যখন আমাকে দিয়ে ফুলফিল হয় নাই, তখন আম্মুকে দিয়ে চেষ্টা করতে চাইছে, আব্বুকে দিয়ে চেষ্টা করতে চাইছে।‘খারাপ মানুষ যে কোনোভাবে খারাপ কাজটায় সাফল্য পেতে চাইবে।’ এসময় ‘জায়েদ খান আর রাস্তার ব্যাঙ এক কথা’ বলেও মন্তব্য করেন তারকা দম্পতির এই সন্তান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.