স্ত্রীর জন্য লড়তে গিয়ে ‘ভিলেন’ হয়ে গেলেন নায়ক ওমর সানী!

৯৪তম অস্কারের জমজমাট অনুষ্ঠান চলছে। সঞ্চালক ক্রিস রক রসিকতা করলেন অভিনেতা উইল স্মিথের স্ত্রীকে নিয়ে। এক মুহূর্ত দেরি না করে স্মিথ উঠে যান মঞ্চে; সজোরে চড় মারেন ক্রিস রকের গালে। সেই চড়কাণ্ড নিয়ে বহু মাতামাতি হয়েছে।সম্প্রতি ঢাকাই সিনেমার জগতেও প্রায় একই ঘটনা ঘটেছে। চিত্রনায়ক জায়েদ খানকে চড় মেরেছেন চিত্রনায়ক ওমর সানী। কারণ, সানীর স্ত্রী অর্থাৎ জনপ্রিয় চিত্রনায়ক মৌসুমীকে বিরক্ত করছেন জায়েদ। চড়ের পর জায়েদ পিস্তল ঠেকিয়ে গুলির হুমকি দিয়েছেন। এটা অবশ্য ওমর সানীর দাবি। তিনি বিষয়টি নিয়ে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতিতে লিখিত অভিযোগও করেছেন।

কিন্তু জায়েদ খান শুরু থেকে ঘটনাটি অস্বীকার করে আসছেন। তার স্পষ্ট দাবি, এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। তিনি চড় খাননি, কিংবা পিস্তল বের করে হুমকিও দেননি। ঘটনাস্থলে থাকা আরও কয়েকজন তারকাও চড়-পিস্তল কাণ্ডের কথা জানেন না বলে মন্তব্য করেছেন। এসব নিয়ে যখন মিশ্র প্রতিক্রিয়া চলছে সিনে পাড়ায়। তখন সবচেয়ে বড় বোমা ফাটালেন ঘটনার কেন্দ্রবিন্দু মৌসুমী। স্বামী ওমর সানী নয়, বরং জায়েদ খানেরই পক্ষ নিয়েছেন তিনি। এমনকি জায়েদকে ‘ভালো ছেলে’ আখ্যাও দিয়েছেন নায়িকা।

সোমবার (১৩ জুন) এক অডিও বিবৃতি দিয়েছেন মৌসুমী। সেখানে তিনি স্পষ্টভাবে বলেছেন, জায়েদ খানের সঙ্গে তার পেশাগত সম্পর্ক। তিনি জায়েদকে স্নেহ করেন। জায়েদ তাকে সবসময় সম্মান দেন; অসম্মান কিংবা বিরক্ত করার ঘটনা কখনো ঘটেনি। সুতরাং সানী কেন এমন অভিযোগ তুলেছেন, সেটা বোধগম্য হচ্ছে না বলেও জানালেন মৌসুমী।

মৌসুমীর বিপরীতমুখী বক্তব্য শুনে ওমর সানীও অবাক হয়েছেন। নরম সুরে বলেছেন, মৌসুমী তার স্ত্রী। সুতরাং তাকে দোষারোপ করতে চান না। তবে জায়েদের বিষয়ে অভিযোগের জায়গায় অটল আছেন তিনি।সানী-মৌসুমী-জায়েদ ইস্যুতে সোশ্যাল মিডিয়াও সরগরম। নানারকম আলোচনা-সমালোচনা চলছে অন্তর্জাল দুনিয়ায়। প্রথম দিকে ওমর সানীর পক্ষে অধিকাংশের মতামত দেখা গিয়েছিল। কিন্তু মৌসুমীর বক্তব্যের পর উল্টো দিকে হাওয়া বইছে। যাকে ঘিরে ঘটনার সূত্রপাত, সেই তিনিই জায়েদকে নির্দোষ দাবি করলেন। বিপরীতে নিজের স্বামীকেই দাঁড় করালেন প্রশ্নের কাঠগড়ায়। ফলে স্ত্রীর জন্য লড়তে গিয়ে দিনশেষে যেন ভিলেনই হয়ে গেলেন নায়ক ওমর সানী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.